যে দুই বিষয়ে হাসিনাকে আশ্বাস দিলেন মোদি

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৩১ আগস্ট, ২০১৮

টানা দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় থাকাকালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সম্ভবত শেষ বৈঠকটি করলেন শেখ হাসিনা। সেখানে তিনি অন্তত দুটি বিষয়ে আশ্বাস পেয়েছেন প্রতিবেশী দেশটির সরকার প্রধানের কাছ থেকে।

আসামে চূড়ান্ত নাগরিক পঞ্জিতে প্রায় ৪০ লাখ বাঙালি নাগরিকত্ব হারিয়েছে। ভারত তাদেরকে বাংলাদেশি হিসেবে চিহ্নিত করলেও ফেরত পাঠাবে না। এছাড়া রোহিঙ্গাদের নিজ দেশ মিয়ানমারে ফেরত পাঠাতে ভারতই প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করবে।

বিমসটেক সম্মেলনে যোগ দিতে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী গতকাল বৃহস্পতিবার নেপালে যান। সেখানেই বিকালে তাদের মধ্যে এই বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।

ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়, বৈঠকে মোদি এনআরসি (নাগরিক পঞ্জি) নিয়ে আশ্বাস দিয়েছেন শেখ হাসিনাকে। জানিয়েছেন, নির্বাচনের মুখে বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি টালমাটাল হয়ে যাক সেটা আদৌ ভারতের কাম্য নয়। আসামে চিহ্নিত হওয়া শরণার্থী এবং অনুপ্রবেশকারীদের ভারত যে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাবে না, হাসিনা এ বিষয়ে নিশ্চিন্ত থাকতে পারেন।

পাশাপাশি মোদি এ কথাও জানিয়েছেন, রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের জন্য ঢাকাকে দুয়ারে দুয়ারে ঘুরতে হবে না। নয়া দিল্লি এই সমস্যায় সর্বতোভাবে ঢাকার পাশে রয়েছে। মিয়ানমারের সঙ্গে এই নিয়ে দৌত্য যেমন চলছে, পাশাপাশি কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ত্রাণ সামগ্রী পাঠানোও চলছে। অদূর ভবিষ্যতে এই সাহায্যের বহর আরও বাড়ানো হবে। আবার মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ আবাসও গড়ে দিচ্ছে দিল্লি।

এছাড়া দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ নিয়েও ইতিবাচক বার্তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

অন্যদিকে স্বাধীনতার পর থেকে সে দেশের উন্নয়নে ভারতের ভূমিকার কথা আবারও উল্লেখ করেছেন শেখ হাসিনা। এজন্য মোদিকে ধন্যবাদও দিয়েছেন তিনি।

বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম তাদের উদ্ধৃত করে বলেন, তারা বলেছেন, ‘আমরা আমাদের পারস্পরিক সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে চাই এবং এতে বিমসটেকের সকল সদস্য-দেশ লাভবান হবে।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী, ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান এবং পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

পরে সন্ধ্যায় হায়াত রিজেন্সি হোটেলে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলির দেয়া নৈশভোজে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও অন্যান্য বিমসটেক নেতারা যোগ দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

ফেসবুকে আমরা …