সংবাদ শিরোনামঃ
ভোলার উওর দিঘলদীতে চাঁদা না দেওয়ায় প্রবাসির উপর হামলা আহত : ১ বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড পৃথিবীর সব চেয়ে নৃশংস রাজনৈতিক ঘটনা: সেতুমন্ত্রী চকরিয়া প্রেসক্লাবের দ্বিবার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন জাহেদ চৌধুরী সভাপতি, মিজবাউল হক সম্পাদক নিউইয়র্কে লাঞ্ছিত ইমরান এইচ সরকার (ভিডিও) ঠাকুরগাঁও জেলা পুলিশের সহযোগীতায় গড়েয়া গরুর হাটে জাল নোট সনাক্তকরণ বুথ দেবীগঞ্জে জাতীয় শোক দিবস পালিত এ দেশের মানুষকে কেউ দাস বানিয়ে রাখতে পারবে না: ড. কামাল বীরগঞ্জে এতিম ও ছিন্নমূল শতাধিক পথ শিশুদের  মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ বান্দরবানে ইয়াংছা-বনপুর সড়ক যেন মরণফাঁদ ! লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের শোক র‌্যালী



১৪ বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি কৌলা-চৌধুরীবাজার সড়কে !

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১০ আগস্ট, ২০১৮

কুলাউড়া প্রতিনিধি: ছোট-বড় অসংখ্য গর্ত আর খানা খন্দে ভরা, কোথাও পিচ উঠে পাথর বেরিয়ে এসেছে। কোথাও আবার দেখা দিয়েছে বড় গর্তের। তাই ভ্যান, অটোরিকশা, সিএনজিসহ যানবহনে যাত্রীদের প্রচণ্ড ঝাকুনির মধ্যেই চলাচল করতে হচ্ছে।

বলছিলাম মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার রাউৎগাঁও ইউনিয়নের চৌধুরীবাজার থেকে কৌলা-গ্রামের সড়কের কথা।

স্থানীয়দের অভিযোগ, প্রায় ১৪ বছর ধরে সড়কটি ভাঙাচোরা অবস্থায় থাকলেও তা সংস্কারে সংশ্লিষ্টদের কোনো উদ্যোগ নেই। চরম দুরবস্হায় চৌধুরীবাজার থেকে কৌলাগ্রামী রাস্তাটি, প্রায় ১৪ বছর পূ্র্বে রাস্তাটি পাকাকরন করা হলে ও আজ অবদি একবারে ও দৃশ্যমান কোন সংস্কার কাজ হয়নি।

প্রতিদিন স্কুল কলেজ মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্র ছাত্রীদের ভোগান্তি বেশি হচ্ছে। অবিলম্বে এ সড়কটি সংস্কারের দাবি ভুক্তভোগীদের।

দিন মাস বছর যায় জনপ্রতিনিধিদের আশ্বাস আর আশ্বাসই থেকে যায়। স্হানীয় রাউৎগ্রাও ইউপি সদস্য ইসমাইল হোসেন দৈনিক ভোরের সূর্য কে জানান সাবেক এমপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর এর আমলে রাস্তাটি পাকাকরণ করা হয়েছিল।

স্হানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, কৌলা গ্রামে অনেক বড় বড় নেতা থাকার পর ওনাদের দৃষ্টি যেন এড়িয়ে চলছেন।এলাকার প্রতি যেন তাদের কোন দায়িত্ববোধ নেই? তারা শুধু সভা সমাবেশ নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে এটা আমাদের দুর্ভোগের বিষয়। প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় কুলাউড়া রবিবাজারের ব্যস্ততম এই রাস্তা যখন বন্ধ যায়, তখন সেই রাস্তা দিয়ে হালকা ভারি সব ধরনের যানবাহনের যাতয়াতের ফলে কৌলা চৌধুরীবাজার রাস্তাটির বেহালদশা হয়। আড়াই কিলোমিটারের রাস্তায় বেশি যানবাহনের কারনে এই এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়। এবং রাস্তার ব্রিজ-কালভাট ব্যবহারে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।ভাঙ্গন সেগুলো আরও বহন করছে কোনটি একেবারে বন্ধ হয়ে গেছে বর্ষা মৌসুমে এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করে রাস্তাটি পানির নিচে তলিয়ে যায়।

কৌলা গ্রামের মজম্মিল আলী জানান, রাস্তা ভাঙ্গা থাকায় বয়স্ক ব্যক্তি, নারী, শিশু ও রোগীদের পথ চলতে সমস্যা হয়। বিশেষ করে রাতের বেলা প্রায়ই গর্তে পড়ে সিএনজি, অটোরিক্সা উল্টে পড়ারও ঘটনা ঘটে থাকে। অনেক সময় পথচারীরা হাটতে গিয়ে অসাবধানবশত গর্তে পড়ে আহতও হচ্ছে।

তাই এলাকাবাসীর দাবী স্হানীয় সংসদ সদস্য ও সংশিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ অতিবিলম্বে রাস্তাটির সংস্কারের জন্য সু-নজর দিবেন…।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

ফেসবুকে আমরা …